ঢাকা কলেজ ছাত্র জসিমের ‘ইয়াবা গুরু’ আপন বড় ভাই

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ২০১৮ | ১ শ্রাবণ ১৪২৫

ঢাকা কলেজ ছাত্র জসিমের ‘ইয়াবা গুরু’ আপন বড় ভাই

এম এম কবীর ৩:৪৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৫, ২০১৮

print
ঢাকা কলেজ ছাত্র জসিমের ‘ইয়াবা গুরু’ আপন বড় ভাই

টাকার মোহে মো. আলম এতোটাই অন্ধ হয়ে পড়েছিলেন যে, ইয়াবার ব্যবসায়ে টেনে আনেন আপন ছোট ভাই জসিম উদ্দিনকে। ঢাকা কলেজের সমাজ বিজ্ঞানের ছাত্র জসিমও অন্ধকার জগতের মোহে এক সময় আচ্ছন্ন হয়ে পড়েন। ভাইয়ের ব্যবসার চালান পৌঁছে দিতে থাকেন রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায়। বন্ধুদেরও টেনে আনেন মরণ এই নেশায়।

অবশ্য শেষতক র‍্যাবের জালে ধরা পড়েছেন দুই ভাই- মো. আলম আর জসিম। তাদের অপর দুই সহযোগীও ধরা পড়েছেন র‍্যাবের হাতে।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে দুই ভাইয়ের ইয়াবা ব্যবসার বর্ণনা দেন র‍্যাব-২ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আনোয়ার উজ জামান।

কে এই আলম?

মো: আলম (৪০)। বিদ্যালয়ের গণ্ডি পার হতে পারেননি। পড়াশোনা করেছেন তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত। কক্সবাজারের কলাতলি এলাকায় বন্ধুদের নিয়ে চিংড়ি মাছের পোনার ব্যবসা, কটেজ, জমি কেনা-বেচার ব্যবসা করে আসছিলেন। ব্যবসা ফেঁপে উঠলে ডুবে যান ইয়াবার নেশায়।

এক পর্যায়ে মিয়ানমার থেকে আসা এক মাদক ব্যবসায়ীর সাথে গড়ে ওঠে সখ্য। নিজেও জড়িয়ে পড়েন ইয়াবার কারবারে।

জসিমের ‘ইয়াবা গুরু’ আলম

র‍্যাব-২ এর অধিনায়ক জানান, আলম দেশের বিভিন্ন জেলার মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে ইয়াবা সরবরাহ করতেন।

ব্যবসা ফুলেফেঁপে উঠলে একজন ডানহাত দরকার হয় আলমের। আর এ কাজে আপন ভাই মো. জসিম উদ্দিনকে টেনে নেন অন্ধকার এ জগতে। বড় ভাইয়ের হাত ধরে জসিমও হয়ে ওঠে ইয়াবা ডন।

র‍্যাব কর্মকর্তা জানান, জসিম তার স্কুল কলেজ পড়ুয়া বন্ধুদের সাথে ভিন্ন রকমের সখ্য গড়ে তোলেন। তাদের মাঝে সরবরাহ করতে থাকেন ইয়াবা। এমনকি মাদক সেবনের জন্য আলাদা ফ্ল্যাটও ভাড়া করেন জসিম।

লে. কর্নেল আনোয়ার উজ জামান জানিয়েছেন, ইয়াবা সম্রাট আলম আরো বিত্তবান হওয়ার জন্য তার পরিবারকেও ব্যবহার করেছেন। তার আপন ভাইই শুধু নয়, তার স্ত্রীও নিষিদ্ধ এই ব্যবসার কথা জানতেন।

তিনি জানান, আলম কলেজ পড়ুয়া ভাইকে দিয়েই পুরো ঢাকা শহরে ইয়াবা সাপ্লাই দিতেন। প্রায়ই জসিমের ফ্ল্যাটে বন্ধুদের নিয়ে বসত মাদকের জমজমাট আড্ডা।

উল্লেখ্য, বুধবার রাজধানীর হাজারীবাগ থানা এলাকার মধুরবাজার থেকে আলম ও তার ভাই জসিমসহ চার ইয়াবা ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে র‍্যাব।

এমকে/এএসটি

আরও পড়ুন...
কলাতলীর শামীম গেস্ট হাউজ ছিল আলমের ইয়াবার গোডাউন

 
.



আলোচিত সংবাদ