ধর্ষণের পর আঁখিকে হত্যা : ৩ যুবকের খোঁজে পুলিশ

ঢাকা, রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮ | ১০ আষাঢ় ১৪২৫

ধর্ষণের পর আঁখিকে হত্যা : ৩ যুবকের খোঁজে পুলিশ

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১:১০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৮

print
ধর্ষণের পর আঁখিকে হত্যা : ৩ যুবকের খোঁজে পুলিশ

রাজধানীর পল্লবী মহিলা ডিগ্রি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক প্রথম বর্ষের ছাত্রী আঁখি আক্তার হত্যার রহস্য উন্মোচন করতে তিন যুবককে খুঁজছে পুলিশ। এরই মধ্যে আঁখির প্রেমিক সাব্বিরকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সাব্বির রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের ছাত্র। জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যাকাণ্ডে সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার না করলেও তিনজনের নাম বলেছে। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতেই ওই তিনজনকে ধরতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।

তদন্ত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সুরতহাল প্রতিবেদনে আঁখির গলা, ঘাড়, গোপনাঙ্গসহ বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। যা দেখে ধারণা করা হচ্ছে তাকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য যাবতীয় আলামত সংগ্রহ করে পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে।

ঢাকা রেলওয়ে থানার ওসি ইয়াসিন ফারুক পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আঁখির প্রেমিক সাব্বিরকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া সন্দেহের তালিকায় আরো কয়েকজন রয়েছে। তাদের আটকের চেষ্টা চলছে।

তিনি বলেন, আঁখিকে কোথায়, কি কারণে খুন করা হয়েছে সে বিষয়ে আমরা এখনো নিশ্চিত হতে পারিনি। তদন্ত চলছে, তদন্তের পরই এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে। নিহতের লাশ দাফনের জন্য সোমবার তার গ্রামের বাড়ি মাদারীপুরে নেয়া হয়েছে। সেখানকার কাজ সেরে পরিবারের সদস্যরা এসে মামলা করবেন।

আঁখির বড় মামা নুরুল ইসলাম খান পরিবর্তন ডটকমকে জানান, তারা পুলিশকে মৌখিকভাবে কয়েকজনের নাম বলেছেন। তাদের ধারণা, বন্ধুদের কেউই আঁখিকে খুন করেছে।

আঁখির আরেক মামা রোকন খান পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, আঁখির বাবা আরিফ হোসেন ও মা হাসনা হেনা মরিশাসে থাকেন। তাদের নির্দেশে গ্রামের বাড়ি মাদারীপুরের কালকিনিতে আাঁখির মরদেহ দাফন করা হয়েছে। মঙ্গলবার তারা বিদেশ থেকে ফিরবেন।

তিনি বলেন, আঁখি আমার পরিবারের সাথেই মিরপুরের বাসায় থাকতো। ঘটনার দিন সকালে সে কলেজে যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হয়। এরপর থেকেই নিখোঁজ ছিল।

রোকন আরো বলেন, অনেক খোঁজাখুঁজি করে আঁখিকে না পেয়ে শনিবার রাত ১টার দিকে মিরপুর থানায় আমরা একটি জিডি করি। পরে রোববার ভোরে বিমানবন্দর রেল স্টেশনে আঁখির লাশ পাওয়ার বিষয়টি তার বন্ধু সাব্বির আমাদের ফোন করে জানায়। তাকে আমরা আগে চিনতাম না। পরে জানতে পেরেছি তার সঙ্গে আঁখির প্রেমের সম্পর্ক ছিল।

ওইদিন সকালে ঢাকা বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশন থেকে কালো ব্যাগের মধ্যে মোড়ানো অবস্থায় আঁখির লাশ উদ্ধার করে বিমানবন্দর রেলওয়ে থানার পুলিশ।

পিএসএস/এসবি
পরিত্যক্ত ব্যাগে পাওয়া অজ্ঞাত মরদেহ পল্লবীর আঁখির

 
.




আলোচিত সংবাদ