‘পদ্মাবতী’ যাচাই করতে ঐতিহাসিক খুঁজছে মোদী সরকার!

ঢাকা, বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

‘পদ্মাবতী’ যাচাই করতে ঐতিহাসিক খুঁজছে মোদী সরকার!

পরিবর্তন ডেস্ক ১:৩০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৭, ২০১৭

print
‘পদ্মাবতী’ যাচাই করতে ঐতিহাসিক খুঁজছে মোদী সরকার!

ছবির শুটিংয়ের শুরু থেকেই বিতর্কিত সঞ্জয় লীলা বানশালী নির্মিত ছবি ‘পদ্মাবতী’। এই বিতর্ক ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার পর্য ন্ত গড়িয়েছে। অভিযোগ রয়েছে, ছবিটিতে ইতিহাস বিকৃত করে দেখানো হয়েছে। আটকে দেওয়া হয়েছে ছবিটির মুক্তি। তবে ছবিটির নির্মাতা এ অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে আসছেন।

.

সব ঐতিহাসিক তথ্য ঠিকঠাক দেখানো হয়েছে কিনা তা নামি ঐতিহাসিকদের দিয়ে যাচাই করতে চায় কেন্দ্র সরকার। এ কারণে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক এ ব্যাপারে মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের সাহায্য চেয়েছে বলে কলকাতার সংবাদ মাধ্যম এবিপি আনন্দের খবরে বলা হয়।

জানা গেছে, মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক যোগ্য ঐতিহাসিকদের নাম প্রস্তাব করবে, যাদের নিয়ে গঠিত সেন্সর বোর্ড প্যানেল পর্যালোচনা করবে ছবিটির। সেন্সর বোর্ড এ ব্যাপারে চিঠি লেখে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রককে।
গত ১ ডিসেম্বর মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল দীপিকা-শহিদ-রণবীরের ‘পদ্মাবতী’।

সেন্সর বোর্ডের বিশেষ কমিটি ‘পদ্মাবতী’ দেখেই উঠতে না পারায় ফিল্মটি সেন্সর বোর্ডের সার্টিফিকেট পায়নি।

ছবিতে ইতিহাস বিকৃত করার অভিযোগ তুলে শুটিংয়ের সময় থেকে বাধা দিয়ে আসছে কর্ণী সেনা নামের সংগঠনটি।
কর্ণী সেনার অভিযোগ, পদ্মাবতী ছবিতে ভুলভাবে চিতোরের রানী পদ্মিনীকে উপস্থাপন করা হয়েছে। ছবির পদ্মাবতী চরিত্র ইতিহাসের রানি পদ্মিনী। সেখানে পদ্মাবতীর সঙ্গে আলাউদ্দিন খিলজির প্রেম দেখানো হয়েছে। এখানেই মূল আপত্তি কর্ণী সেনার। রাজস্থানের পাশাপাশি গুজরাটে ছবির পোস্টার মুক্তি হতেই বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে স্থানীয় রক্ষণশীল রাজপুতরা। এছাড়াও পদ্মাবতী নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকেও আপত্তি জানানো হয়।

বিএইচ/

 

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad