বাগদানের পর কেনো ভেঙে গিয়েছিলো অভিষেক-কারিশ্মা প্রেম!
Back to Top

ঢাকা, রবিবার, ৫ এপ্রিল ২০২০ | ২২ চৈত্র ১৪২৬

বাগদানের পর কেনো ভেঙে গিয়েছিলো অভিষেক-কারিশ্মা প্রেম!

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:৫৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২১, ২০২০

বাগদানের পর কেনো ভেঙে গিয়েছিলো অভিষেক-কারিশ্মা প্রেম!

২০০২ সালের ১১ অক্টোবর বিগ-বির ৬০ বছরের জন্মদিনের অনুষ্ঠান ছিলো। উপস্থিত ছিলেন বলিপাড়ার বড় বড় তারকারা।হঠাৎই মঞ্চে বোমা পড়ল। সবাইকে চমকে দিয়ে কাপুর পরিবারের আদরের মেয়ে কারিশ্মা কাপুরের সঙ্গে ছেলে অভিষেকের সম্পর্কের কথা ঘোষণা করলেন স্বয়ং বিগ-বি। মঞ্চেই হয়েছিলো বাগদান।

তবে, কেনো অভিষেক-কারিশ্মারের সম্পর্ক ভেঙে গেলো এমন প্রশ্ন ভক্তদের মনে!

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিগ-বি’র জন্মদিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত  থাকা মিডিয়া, ইন্ডাস্ট্রির বাকি সকল তারকাদের তো তখন আকাশ থেকে পড়ছে এমন অবস্থা। কোনো দিন কখনো তাদের নিয়ে একফোঁটাও গুঞ্জন শোনা যায়নি। ভক্তদের মনে তখন প্রশ্ন একটাই কারিশ্মা-অভি এনগেজমেন্ট সেরে নিলেন বিগ-বি।

খবরটা ছড়িয়ে পড়তে বেশি সময় নিলো না। অনুরাগীদের যেন আর তর সয় না। সে সময় করিশ্মা ইন্ডাস্ট্রির চোখের মণি। কেরিয়ারের পিছে রয়েছেন। ‘বিবি নম্বর ১’ , ‘রাজা হিন্দুস্থানি’ , ‘ফিজা’ এর মতো একের পর এক হিট ছবি দিয়েই যাচ্ছেন।

কিন্তু আরো একবার সবাইকে চমকে দিয়ে ঘোষণার মাত্র চার মাসেই ভেঙে যায় তাদের সম্পর্ক। ভেঙে যায় বাগদানও। সঠিক কারণ আজও রহস্য। যদিও কেউ বলেন, ববিতা অর্থাৎ করিশ্মার মা নাকি এর জন্য দায়ী। তিনিই নাকি চাননি সম্পর্ক পরিণতি পাক।

ববিতার বক্তব্য ছিলো সে সময় সবে কেরিয়ার শুরু করেছেন অভিষেক। অন্যদিকে করিশ্মা তখন বেশ প্রতিষ্ঠিত। একজন কম প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তির সঙ্গে নিজের মেয়ের বিয়ে দিতে নাকি একেবারেই রাজি ছিলেন না অভিনেত্রী।

আর এক সূত্র বলছে, সে সময় বচ্চন পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থাও খুব একটা ভালো যাচ্ছিল না। তাই সিঙ্গল মা ববিতাও অভিষেকের সঙ্গে মেয়ের বিয়ে দিতে একেবারেই সাহস পাচ্ছিলেন না।

এদিকে অনুরাগীদের তখন মন খারাপ। পরের বছর অর্থাৎ ২০০৩-এ দিল্লির নামকরা ব্যবসায়ী সঞ্জয় কাপুরের সঙ্গে বিয়ে হয় কারিশ্মার। মাই পছন্দ করেছিলেন ছেলে। কিন্তু সেই বিয়েও টেঁকেনি কারিশ্মার। ২০১১ সালে বিবাহ বিচ্ছেদের জন্য আবেদন করেছিলেন কারিশ্মা। অবশেষে ২০১৬তে বিচ্ছেদ হয়ে যায় তাদের।

পরর্তীতে শোনা যায়, কারিশ্মার সঙ্গে থাকাকালীনই নাকি অন্য মহিলাদের প্রতি আসক্ত ছিলেন সঞ্জয়। চলত মারধোর, গালিগালাজও। বাধ্য হয়েই দুই সন্তান নিয়ে বেরিয়ে আসতে হয়েছিলো তাকে।

অন্যদিকে ঐশ্বরিয়ার সঙ্গেও ২০০৭ সালে বিয়ে হয় অভিষেকের। ১৩ বছর একসঙ্গে রয়েছেন তারা। দুজনের মধ্যেকার সম্পর্কও বেশ মজবুত। মেয়ে আরাধ্যাকে নিয়ে দিব্যি আছেন অভিষেক-ঐশ্বরিয়া।

কারিশ্মার মা ববিতার বারণের নাকি রয়েছে অন্য কারণ? করিশ্মা এবং অভিষেকের বিচ্ছেদের কারণ আজো রহস্যই রয়ে গেছে ভক্তদের মাঝে।

এসকে

 

তারায় তারায়: আরও পড়ুন

আরও