নিষেধাজ্ঞা শেষে নদীতে ধরা পড়ছে প্রচুর ইলিশ

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

নিষেধাজ্ঞা শেষে নদীতে ধরা পড়ছে প্রচুর ইলিশ

বরিশাল ব্যুরো ৪:১০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০১৭

print
নিষেধাজ্ঞা শেষে নদীতে ধরা পড়ছে প্রচুর ইলিশ

ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুম ১ অক্টোবর থেকে ২২ দিন নদীতে জাল ফেলার নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার পর রোববার মধ্যরাত থেকে জেলেরা ইলিশ ধরতে শুরু করেছেন। নদীতেও ধরা পড়ছে প্রচুর ইলিশ। সোমবার ভোর থেকে জেলেরা ট্রলারবোঝাই করে এসব ইলিশ বিক্রির জন্য নিয়ে আসছেন নগরীর পোর্ট রোডে ইলিশের মোকামে।

.

পোর্টরোড ইলিশের মোকাম ঘুরে জেলে ও ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে জানা গেছে, ইলিশ ধরার নিষেধাজ্ঞাকালীন প্রশাসনের নজরদারি থাকায় নদীতে জাল ফেরতে পারেনি জেলেরা। যার কারণে এই সময়ে জেলেরা তাদের পুরনো জালগুলো মেরামত করেছেন। এরপর নিষেধাজ্ঞা শেষে রোববার রাত ১২টা থেকে বরিশালের স্থানীয় নদীর কীর্তনখোলা, মেঘনা, কালাবদরসহ বিভিন্ন নদীতে ইলিশ শিকারে নামেন জেলেরা।

এসময় জেলেদের জালে ধরা পড়তে শুরু করে প্রচুর ইলিশ। এসব ইলিশ সোমবার  ভোর  থেকে ট্রলারযোগে নিয়ে আসে নগরী পোর্টরোড ইলিশের মোকামে। আর দুপুর ১২টা পর্যন্ত ২ হাজার মণ ইলিশ বিক্রি হয়েছে এই মোকামে।

এদিকে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ায় ইলিশের দাম অনেকটা কমে গেছে। ২৫০ গ্রাম সাইজের ইলিশ মণপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ১০-১২ হাজার টাকায়, ৪শ থেকে ৫শ গ্রাম ১৫-১৬ হাজার টাকায়, ৬শ থেকে ৯শ গ্রাম ওজনের ২২-২৫ হাজার টাকায় আর ১ কেজির উপরের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে মণপ্রতি ৩২-৪০ হাজার টাকা দরে।

জেলে মো. মাসুম জানান, স্থানীয় নদীগুলোতে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ায় খুবই খুশি। তিনি সারারাত ইলিশ ধরে বরিশালের মোকামে নিয়ে এসেছেন। এখানে মাছ বিক্রি করে আবার ইলিশ ধরতে ফিরে যাবেন নদীতে। 

পোর্ট রোডে ইলিশ মোকামের ব্যবসায়ী বাপ্পি দাস জানান, গত দশ বছরেও এতো পরিমাণ ইলিশের দেখা মেলেনি। তবে এখন এখানে আসতে শুরু করেছে কেবল নদীর মাছ। চার-পাঁচ দিন পরেই সাগরের মাছ আসতে থাকবে। তখন ইলিশের দর আরো কমবে বলে জানান এই ব্যবসায়ী।

বরিশাল জেলা মৎস্য কর্মকর্তা (ইলিশ) বিমল চন্দ্র দাস জানান, ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞায় ইলিশ ডিম ছাড়তে পেরেছে এবং ইলিশ শিকার নিষেধাজ্ঞা অভিযানে সরকার সফল হয়েছে। নদীতে প্রচুর ইলিশ থাকায় মাত্র কয়েক ঘন্টার মধ্যেই অনেক ইলিশ শিকার করতে সক্ষম হয়েছে জেলেরা।

তবে আগামী ১ নভেম্বর থেকে জাটকা রক্ষা করতে পারলে আগামীতে নদী ও সাগরে আরো বেশি ইলিশ মিলবে বলে আশা করছেন এই মৎস্য কর্মকর্তা।

জেইউ/বিএইচ/

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad