চুরির অপবাদে দুই শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

ঢাকা, রবিবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২০ | ১৩ মাঘ ১৪২৬

চুরির অপবাদে দুই শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

পিরোজপুর প্রতিনিধি ৫:২৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৮, ২০১৯

চুরির অপবাদে দুই শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলার উত্তর ভিাটাবাড়ীয়া গ্রামে শনিবার দুপুরে টাকা চুরির মিথ্যা অভিযোগে দুই শিশুকে গাছের সঙ্গে বেঁধে মধ্যযুগীয়া কায়দায় নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় নির্যাতিত রাকিব হাওলাদারের মা রাশিদা বেগম বাদী হয়ে ভাণ্ডারিয়া থানায় মামলা করলে পুলিশ নির্যাতনকারী মুদি ব্যবসায়ী খলিলুর রহমান ও তার ছেলে মেহেদি হাসানকে গ্রেফতার করেছে।

নির্যাতিত রাকিব হাওলাদার (৯) উত্তর ভিটাবাড়িয়া গ্রামের তাজাম্মেল হাওলাদারের ছেলে এবং হৃদয় বয়াতি (১১) একই গ্রামের রুবেল বয়াতির ছেলে।

রাকিব ৬নং পশ্চিম ভিটাবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্র এবং হৃদয় ভিটাবাড়িয়া আজাহারিয়া দাখিল মাদ্রাসার ৫ম শ্রেণির ছাত্র।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, রাকিব ও তার বন্ধু হৃদয় শনিবার দুপুরে খলিলুর রহমানের মুদি দোকানের সামনে থেকে যাওয়ার সময় খলিলুর রহমান ও তার ছেলে মেহেদি হাসান তাদেরকে বাড়ির মধ্যে ডেকে নিয়ে যায় এবং টাকা চুরির মিথ্যা অভিযোগ এনে উঠোনের কাফুলা গাছে বেঁধে তাদের ওপর বর্বরীয় নির্যাতন চালায়। এসময় প্রতিবেশীরা নির্যাতনের দৃশ্য মোবাইল ফোনে ধারণ করে। পরে এলাকাবাসীর সহায়তায় গুরুতর আহত অবস্থায় শিশু দুটিকে উদ্ধার করে ভাণ্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে ভাণ্ডারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাকসুদুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ‘রাকিবের মা রাশিদা বেগম বাদী হয়ে দুজনকে আসামি করে একটি মামলা করেছেন এবং আসামিদের গ্রেপ্তার করে রোববার কোর্টের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এইচআর

 

বরিশাল: আরও পড়ুন

আরও