প্রধানমন্ত্রীর 'অরুচিকর' সাক্ষাৎকার নিয়ে তোলপাড়

ঢাকা, সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮ | ১১ আষাঢ় ১৪২৫

প্রধানমন্ত্রীর 'অরুচিকর' সাক্ষাৎকার নিয়ে তোলপাড়

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:৫২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৮

print
প্রধানমন্ত্রীর 'অরুচিকর' সাক্ষাৎকার নিয়ে তোলপাড়

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেকিন্ডা আর্ডার্নের একটি উদ্ভট সাক্ষাৎকার নেয়ায় অস্ট্রেলিয়ার এক সাংবাদিকের তীব্র সমালোচনা করছেন নিউজিল্যান্ডসহ পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ।

অস্ট্রেলিয়ার একটি টিভি চ্যানেলে রোববার রাতে সম্প্রচারিত 'সিক্সটি মিনিটস' শোতে বর্ষীয়ান সাংবাদিক চার্লস উলি ৩৭ বছর বয়সী আর্ডার্নকে 'আকর্ষণীয়' বলে অভিহিত করেন।

পার্লামেন্ট হাউজে ধারণ করা আর্ডার্নের ভিডিওর সাথে তার বর্ণনা দেয়ার সময় উলি বলেন, 'আমি জীবনে বহু প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করেছি। কিন্তু, তার চেয়ে কম বয়সী কাউকে দেখিনি। তার মতো বুদ্ধিমতী খুব কম পেয়েছি। এবং তার মতো আকর্ষণীয় একজনকেও পাইনি।'

উলি বলেন নিউজিল্যান্ডের মানুষদের মতো তিনিও আর্ডার্নের প্রতি 'মুগ্ধ'। অনুষ্ঠানের  প্রোমোতে তাকে 'তরুণী, সৎ, ও গর্ভবতী' বিশ্ব নেত্রী হিসেবে বর্ণনা করা হয়।

সাক্ষাতকার নেয়ার সময় উলি নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীকে একের পর এক অপ্রাসঙ্গিক ও দারুণ ব্যক্তিগত প্রশ্ন করেন এবং বিভিন্ন বৈষম্যমূলক মন্তব্য করেন। অনুষ্ঠানটি সম্প্রচারিত হওয়ার পর সামাজিক মাধ্যমে নিউজিল্যান্ডের লোকজনরা 'নারীবিদ্বেষী ও অশোভন, অরুচিকর' প্রশ্ন করার জন্য উলির সমালোচনা করেন। অস্ট্রেলিয়ার মানুষেরাও তাদের টিভি চ্যানেলে আর্ডার্নকে আজেবাজে প্রশ্ন করায় দুঃখ প্রকাশ করেন।

সাক্ষাৎকারে আর্ডার্নকে জিজ্ঞেস করা হয়, 'আপনার মতো একজন ভদ্রলোক কীভাবে রাজনীতির নোংরা জগতে প্রবেশ করলেন?'

এর জবাবে আর্ডার্ন হাসিমুখে জবাব দেন, 'ভদ্রলকেরাও রাজনীতি করে।'

আর্ডার্নের গর্ভধারন নিয়ে উলি বার বার প্রশ্ন করায় অস্বস্তি বোধ করেন উলি ও তার জীবনসঙ্গী ক্লার্ক গেফোর্ড।

উলি প্রশ্ন করেন, 'একটা খুব গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক প্রশ্ন আপনাকে করতে চাই। তা হল - ঠিক কত তারিখে আপনার বাচ্চা জন্ম নেয়ার কথা?'

এরপর উলি তার নিজের বাচ্চাকাচ্চা ও গর্ভধারণ নিয়ে জনমানুষের অদ্ভুত মনোভাব সম্পর্কে কিছু নিজস্ব মন্তব্য যোগ করেন। তারপর আবার আর্ডার্নকে জিজ্ঞেস করেন, 'নির্বাচনী প্রচারণার সময় কেন গর্ভধারণ যাবে না?'

এর জবাবে অধৈর্য আর্ডার্ন বলেন, তিনি যখন গর্ভধারণ করেন 'নির্বাচন তখন শেষ হয়ে গিয়েছিল। এই প্রসঙ্গে খুঁটিনাটি তথ্য জানা তো খুব জরুরী নয়।'

গেফোর্ড তাদের বাচ্চার সার্বক্ষণিক দেখাশোনার দায়িত্বে থাকবেন। ওই সাক্ষাৎকারেই উলি যখন জানতে পারেন তাদের বাসায় কাপড় ধোয়ার কাজটিও করেন তখন উলি বিস্ময় প্রকাশ করেন।

উলি পরে নিউজিল্যান্ডের সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, আর্ডার্নকে করা প্রশ্ন ও মন্তব্যগুলো তার কাছে অপ্রাসঙ্গিক বা অদ্ভুত মনে হয়নি। কিন্তু তার স্ত্রী উলিকে, বলেছেন তিনি নাকি আর্ডার্নকে দেখে একদম গলে পড়ছিলেন।

সোমবার আর্ডার্ন রিপোর্টারদের বলেন, ওই সাক্ষাতকারের কোনও কিছুই তার কাছে বিশেষ লক্ষণীয় মনে হয়নি। গর্ভধারণ বিষয়ে প্রশ্ন 'টু মাচ ইনফরমেশন বা অবাঞ্ছনীয় অতিরিক্ত তথ্য' হিসেবে বিবেচনা করা উচিত বলে মনে করেন তিনি।

আর্ডার্ন এ বছরের জানুয়ারিতে তার গর্ভধারণের খবর সবাইকে জানান। জুনের ১৭ তারিখে তার বাচ্চা জন্ম নেয়ার কথা। ক্ষমতায় থাকার সময় মা হওয়া দ্বিতীয় বিশ্বনেত্রী হবেন আর্ডার্ন।

এমআর/

 

 
.




আলোচিত সংবাদ