করোনা ভাইরাসে মৃত বেড়ে ১৭, বন্ধ হচ্ছে উহানের পরিবহন

ঢাকা, বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৭ ফাল্গুন ১৪২৬

করোনা ভাইরাসে মৃত বেড়ে ১৭, বন্ধ হচ্ছে উহানের পরিবহন

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:৩৮ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০২০

করোনা ভাইরাসে মৃত বেড়ে ১৭, বন্ধ হচ্ছে উহানের পরিবহন

চীনে রহস্যময় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশটির উহানে মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে ১৭ জনে। গতকাল বুধবার দেশটির রাষ্ট্রীয় টিভি প্রাদেশিক সরকারের উদ্ধৃতি দিয়ে মৃতের সংখ্যা বাড়ার এ খবর জানায়।

এদিকে, মরণাঘাতি এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে এর উৎস বলে বিবেচিত চীনের উহান শহরের গণপরিবহনে সাময়িকভাবে বন্ধ রাখতে যাচ্ছে নগর কর্তৃপক্ষ। 

বিবিসি বলছে, শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া নতুন চান্দ্র বর্ষের ছুটির দিনগুলোতে যখন কোটি কোটি চীনা নাগরিক দেশ-বিদেশে ভ্রমণ করবে, তখন উহানের এক কোটি ১০ লাখ বাসিন্দাকে শহর না ছাড়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। 

ধারণা করা হয়, চীনের মধ্যাঞ্চলীয় শহর উহানের একটি পশু বাজারে অবৈধভাবে চলা বন্যপ্রাণীর ব্যবসা থেকে গত বছরের শেষ দিকে প্রাণঘাতী এ করোনা ভাইরাসটির সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। বিভিন্ন দেশে বেশ কয়েকজন আক্রান্ত শনাক্ত হওয়ার পর ভাইরাসটি বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ছে বলে শঙ্কা তৈরি হয়েছে। 

এ পর্যন্ত যে ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে তারা সবাই উহানের হুবেইয়ের বাসিন্দা বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম।

মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, নতুন নিউমোনিয়া সদৃশ এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৪৭ ছাড়িয়ে গেছে।

খবরে বলা হয়েছে, ইতিমধ্যে ভাইরাসটি আরও প্রায় সাতটি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে, যা বিশ্বজুড়ে উদ্বেগ ও শঙ্কা তৈরি করেছে।

চীনের বাইরে থাইল্যান্ড, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, ম্যাকাউ এবং হংকংয়ে ভাইরাসটির বিস্তার ঘটেছে। এ ছাড়া মঙ্গলবার নতুন এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রেও। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জরুরি অবস্থা ঘোষণা করার কথা ভাবছে।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো বলছে, ভাইরাসটির সংক্রামণে শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। বিজ্ঞানী ও গবেষকরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন, বাজার অথবা মার্কেটের মতো জায়গা থেকে এটি বেশি ছড়ায়, কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এর গতিবিধি ও এক দেহ থেকে আরেক দেহে কীভাবে ছড়ায় এটি এখনো অস্পষ্টই রয়ে গেছে।

২০০০ সালে একই গোত্রের সার্স ভাইরাসে ৭৭৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল, যাদের অধিকাংশই এশিয়া মহাদেশের। বিশ্লেষকরা বলছেন, নতুন ভাইরাসটির জেনেটিক কোড সার্স ভাইরাসের বেশ কাছাকাছি।

চীনের হুবেই প্রদেশে জনসমাবেশ নিরুৎসাহিত করা ও হাসপাতালের নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা কঠোর করার মতো বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়ে কর্তৃপক্ষ এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করছে।

চীনের স্বাস্থ্য কমিশন দেশজুড়ে নাগরিকদের ঘনবসতিপূর্ণ এলাকাগুলো এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছে ও হুবেই প্রদেশের কর্তৃপক্ষকে ছুটির দিনগুলোতে জনসমাবেশ কমানোর নির্দেশ দিয়েছে।

আরপি

 

আন্তর্জাতিক: আরও পড়ুন

আরও