ধান পচে বিষাক্ত গ্যাস, মরছে হাওরের মাছ

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ জুন ২০১৭ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৪

ধান পচে বিষাক্ত গ্যাস, মরছে হাওরের মাছ

নেত্রকোনা প্রতিনিধি ৩:৪৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৮, ২০১৭

print
ধান পচে বিষাক্ত গ্যাস, মরছে হাওরের মাছ

আগাম বন্যায় নেত্রকোনার হাওর অঞ্চলে শতভাগ বোরো ফসল বিনষ্ট হবার পাশাপাশি এখন মরছে হাওরের মাছও। আর এ মরা মাছ এখন মরার উপর খাঁড়ার ঘা হয়ে দাঁড়িয়েছে এলাকাবাসীর উপর। বন্যায় যখন সামান্য ধানও ঘরে তুলতে পারেননি কৃষকরা তখন সোমবার থেকে হাওরের মাছ মরে ভেসে উঠতে শুরু করেছে। আর এতে পথে বসার উপক্রম হয়েছে মৎস্যচাষী থেকে শুরু করে জেলে সম্প্রদায়ের।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হাওরে হঠাৎ আগাম পানি এসে পড়ায় সকল বোরো ফসলের মাঠ পানিতে তলিয়ে গেছে। ৮ থেকে ১০ দিন ধান পানির নিচে পড়ে থাকায় সেই ধান পচে যায় আর ধান পচে দুর্গন্ধ যেমন সৃষ্টি হয়েছে তেমনি হাওরের পানিতে বিষাক্ত গ্যাসের সৃষ্টি হওয়ায় এখন এ সমস্ত মাছ মরে পানিতে ভেসে উঠছে।

স্থানীয় লোকজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, চৈত্র মাসে অনাকাঙ্ক্ষিত পানি আসায় তাদের বোরো ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এলাকাবাসী ভেবেছিলেন হাওরের মাছ আহরণ করে তারা জীবিকা নির্বাহ করবেন কিন্তু সেই আশাও এখন নেই। ধানও গেল আবার মাছও গেল। বেঁচে থাকার কোনো ভরসা নেই বলে কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন হাওরবাসীরা।

এদিকে ময়মনসিংহের মৎস্য গবেষণাগারের মৎস্য বিষয়ক বিশেষজ্ঞ ড. মো. খলিলুর রহমানের নেতৃত্বে চার সদস্য বিশিষ্ট একটি টিম সোমবার হাওরে যান এবং পানি ও মাছ পরীক্ষা করেন। তিনি জানান, ধান পচে পানিতে বিষাক্ত গ্যাসের সৃষ্টি হয়ে অক্সিজেনের অভাব দেখা দেওয়ায় মাছ মরে যাচ্ছে। এ পানি পারিবারিক কাজে ব্যবহার না করাই ভালো বলেও তিনি অভিমত দেন। যতদিন ধানের গোঁড়া পচন থাকবে ততদিন এ অবস্থা থাকবে বলেও তিনি জানান।

নেত্রকোনা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আশরাফ উদ্দীন আহমেদ জানান, এ সমস্যার কোনো সমাধান নেই। কি পরিমাণ মৎস্য সম্পদের ক্ষতি হয়েছে, তা নিরূপণ করা হচ্ছে। তবে মরে যাওয়া বা ভেসে ওঠা মাছ না খাবার জন্য সকলকে সতর্ক করা হয়েছে।

ডিসি/জেআই-এসএফ/একে

print
 

আলোচিত সংবাদ